কেন ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়ে ক্যারিয়ার গড়ব?

কাল রাতে একজন পরিচিত ভাই ফোন দিয়ে এক নিঃশ্বাসে তিনটি প্রশ্ন করে বসলেন,

“কেনো ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে ক্যারিয়ার করবো?”

“ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে ক্যারিয়ার আছে নাকি?”

ডিজিটাল মার্কেটিং কী?

 

উনাকে উত্তর দেয়ার পড়ে ভাবলাম, কেনো না আপনাদেরকেই এই প্রশ্নগুলোর উত্তর দিই। কারণ এসব প্রশ্ন আমি প্রায়ই শুনে থাকি! উত্তরটা সহজ বাংলায় দেয়ার চেষ্টা করি। দেখি কতটুকু পারা যায়!
প্রথমে জানি ডিজিটাল মার্কেটিংটা আসলে কি?

একভাবে দেখলে ডিজিটাল মার্কেটিং আর ট্র্যাডিশনাল মার্কেটিং একই জিনিস আসলে। কারন, আপনি একটি প্রোডাক্ট সেল করার জন্যে কাস্টোমার এঙ্গেজ করার চেষ্টা করতে থাকবেন এবং একসময় সেল করতে পারবেন। এটাই ট্র্যাডিশনাল মার্কেটিং।

ডিজিটাল মার্কেটিং ট্র্যাডিশনাল মার্কেটিং থেকে অনেক বেশি জটিল আর এর পরিধিটাও অনেক বেশি। আর সেজন্যেই কাস্টোমার এঙ্গেজ করাটাও সহজ।

তাহলে সহজ ভাষায় দাঁড়াচ্ছে, ডিজিটাল মার্কেটিং হচ্ছে কাস্টোমার বাড়ানোর জন্য কিংবা অ্যাঙ্গেজমেন্ট বাড়ানোর জন্য অনলাইনের মাধ্যমে মার্কেটিং করা বা প্রচার করা।

 

Career in digital marketing
Career in digital marketing

 

ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়ে ফ্রি একটা কোর্স করলেই কিন্তু এই বিষয়গুলো একেবারে পানির মতো ক্লিয়ার হয়ে যাবে, তাই না?

 

এখান থেকে ডিজিটাল মার্কেটিং এর ফ্রি কোর্স দুটো করে ফেলতে পারেনঃ

 

এখন আসি, ‘ডিজিটাল মার্কেটিং নিয়ে ক্যারিয়ার গড়া উচিত কী-না’ এই প্রশ্নের উত্তরে!

সহজ উত্তর, ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে ক্যারিয়ার গড়ার মতো খাতের অভাব নেই। তাছাড়া সবচেয়ে বড় কথা হচ্ছে, এশিয়ার মধ্যে চাকরী খাতে সবচেয়ে দ্রুত গতিতে যেই সেক্টরে কাজের সংখ্যা বাড়ছে, সেটা হচ্ছে ডিজিটাল মার্কেটিং।

গত দুই বছরে ডিজিটাল মার্কেটিং খাতে প্রায় ৬০ শতাংশ চাকরির অবস্থান বেড়েছে। আর শুধুমাত্র এই বছরেই তা আরো ৩৮ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে। মজার ব্যাপার হচ্ছে, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স থেকে শুরু করে প্রায় প্রত্যেক খাতেই ডিজিটাল মার্কেটারদের কাজ রয়েছে। অর্থাৎ কোনো খাতই একজন ডিজিটাল মার্কেটারকে ইগনোর করতে পারবে না!

 

বাই দ্যা ওয়ে, সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং নামে ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের একটি মেথড রয়েছে। যেটাকে আমি বলে থাকি, ওয়ান অফ দ্য স্ট্রংগেস্ট মার্কেটিং মেথড! সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং সম্পর্কে আরো ডিটেইলসে জানতে পারবেন এখান থেকেঃ সোশ্যাল মিডিয়ার আদ্যোপান্ত

 

এখন শেষ প্রশ্নের উত্তর দিই, ‘কেন ডিজিটাল মার্কেটিং খাতে ক্যারিয়ার গড়বো?!’

কারণ,

(১) দুনিয়া আধুনিক হচ্ছে, ডিজিটালাইজড হচ্ছে আর তাই এই খাতে প্রচার প্রসারে কাজ কখনোই বাড়বে বৈ কমবে না।

(২) এক গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে, ৬০ শতাংশের বেশি মানুষ বর্তমানে অফলাইন মার্কেটিংয়ের চেয়ে অনলাইন মার্কেটিংকেই গুরুত্ব দিচ্ছে। যার ফলে, আবারো বলতে হচ্ছে যে, কাজের অভাব নেই।

(৩) গবেষনা মতে, ২০২০ সালের মধ্যে প্রায় ১৫০০০০ চাকরির সুযোগ থাকবে, শুধুমাত্র ডিজিটাল মার্কেটিং খাতে। সিরিয়াসলি ম্যান? আরো কিছু লাগবে কনভিন্স করার জন্য?!

(৪) ডিজিটাল মার্কেটারদের বেতন ২০১৭ সাল থেকে প্রায় ৫০ শতাংশ বেড়েছে ২০১৮ সালে। ২০১৯ সালেও এর এদিক সেদিক হচ্ছে না!

(৫) এখানে পড়াশোনার চেয়ে দক্ষতা আর অভিজ্ঞতার উপর জোর দেয়া হয়। আপনি বিবিএ করে এসেছেন নাকি বাংলা থেকে এসেছেন, সেটা কেউ জানতে চাইবে না, কোনোদিনই না।

(৬) অন্যান্য মার্কেটিংয়ের পেশাজীবীদের থেকে ডিজিটাল মার্কেটাররা প্রায় ১৬ শতাংশ বেশি বেতন পেয়ে থাকেন।

(৭) ডিজিটাল মার্কেটিং খাতের অবস্থান এই বছরে ১২ শতাংশ বৃদ্ধি পেতে শুরু করবে, যেখানে ট্র্যাডিশনাল মার্কেটারদের অবস্থান ২ শতাংশ করে কমতে শুরু করবে।

 

সুতরাং, আপনি দশম শ্রেণিতেই পড়েন আর বায়োলজিতে পিএইচডি করেই আসেন না কেন, যদি নিজের ব্র্যান্ডিং করতে হয় তাহলে ঘুরে ফিরে ওই অশিক্ষিত (!) কিন্তু যোগ্য, দক্ষ আর অভিজ্ঞ ডিজিটাল মার্কেটারকেই দরকার পড়বে।

 

ফিচারড প্রোডাক্টঃ ডিজিটাল মার্কেটিং প্রফেশনাল কোর্স

 

By Muntasir Mahdi

Author, Marketer, Entrepreneur, Content Creator

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *